সাকিবকে প্রস্তাব দেওয়া সেই জুয়াড়িও নিষিদ্ধ

0

জুয়াড়ির কাছ থেকে প্রস্তাব পাওয়ার কথা আইসিসির দুর্নীতি দমন ইউনিটকে না জানিয়ে গত অক্টোবরে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন সাকিব আল হাসান।

বাংলাদেশের ক্রিকেটকে কী বিশাল এক ধাক্কাই না দিয়ে গিয়েছিল সে সময়টা। গত অক্টোবর মাসের কথা। হঠাৎ খবর এল, সাকিব আল হাসানকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে আইসিসি, এর মধ্যে এক বছর স্থগিত নিষেধাজ্ঞা। বাংলাদেশের বাঁহাতি অলরাউন্ডারের অপরাধ? জুয়াড়ির কাছ থেকে ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব পেলেও সেটি আইসিসির দুর্নীতি দমন ইউনিটকে জানাননি।

যে জুয়াড়ির কাছ থেকে প্রস্তাবটা পেয়েছিলেন সাকিব, সেই দীপক আগারওয়ালকে এবার দুবছরের জন্য ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট সব কিছুতে নিষিদ্ধ করেছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। যদিও এই শাস্তির সঙ্গে সাকিবকে দেওয়া প্রস্তাবের কোনো সংযোগ নেই। আইসিসির তদন্তে বাধা দেওয়া আর দেরি করানোর অপরাধেই তাঁর এই শাস্তি।

গত বছর শারজাতে হয়ে যাওয়া টি-১০ লিগে সিন্ধিস দলের মালিকদের একজন ছিলেন দীপক আগারওয়াল। আইসিসি আজ বিবৃতিতে জানিয়েছে, তাদের দুর্নীতি দমন ইউনিটের তদন্তে বেশ কয়েকবার বাধা দিয়েছেন দীপক, দেরি করিয়েছেন। ভারতীয় এই জুয়াড়ি অবশ্য নিজের বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ মেনে নিয়েছেন, যে কারণে আর কোনো শুনানিতে যেতে হয়নি।

দুই বছরের নিষেধাজ্ঞার মধ্যে ছয় মাস স্থগিত নিষেধাজ্ঞা থাকবে। আইসিসির বিবৃতিতে লেখা, সব শর্ত মেনে চললে ২০২১ সালের ২৭ অক্টোবর আবার ক্রিকেটে যুক্ত হতে পারবেন দীপক।

আইসিসির মহাব্যবস্থাপক অ্যালেক্স মার্শাল বলেছেন, ‘বেশ কয়েকবার মি. দীপক আগারওয়াল আমাদের তদন্তে বাধা দিয়েছেন অথবা দেরি করিয়েছেন। এটা বিচ্ছিন্নভাবে একবার ঘটেনি। তবে আইসিসির দুর্নীতি দমন কোড ভাঙার অভিযোগ দ্রুতই মেনে নিয়েছেন তিনি, অভিযোগ ওঠা অন্যদের বিরুদ্ধে তদন্তে দুর্নীতি দমন ইউনিটকে সাহায্যও করে যাচ্ছেন। তাঁর শাস্তিতে সেটা প্রতিফলিত হয়েছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here